প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে ফরাসি লিগ বন্ধ থাকায় আর্থিক সংকটে পড়বে ক্লাবগুলো। তবে অন্যান্যদের মত এখনো খেলোয়াড়দের বেতন কর্তন নিয়ে কিছুই জানায়নি ফরাসি লিগের ক্লাবগুলো। কিন্তু নিজেরাই বেতনের ৫০ শতাংশ কম নিতে রাজি হয়েছেন প্যারিস সেন্ট জার্মেইর (পিএসজি) খেলোয়াড়রা।

বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা ৭০ শতাংশ বেতন কম নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অন্য বড় ক্লাবগুলোর খেলোয়াড়রাও বেতন কাটার ব্যাপারে সম্মত হয়েছে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলো কোন সিদ্বান্ত না নিলেও, খেলোয়াড়রা নিজ উদ্যোগে বড় অঙ্কের তহবিল গঠন করছে।এবার নিজ ক্লাব পিএসজির জন্য কিভাবে সহায়তা করা যায় তা নিয়ে আলোচনায় বসেছিল লিগ ফুটবল প্রফেশনাল (এলএফপি) এবং ন্যাশনাল ইউনিয়ন অব প্রফেশনাল ফুটবলারস (ইউএনএফপি)। দুই সংগঠনের আলোচনার পর ঐক্যমত্যের ভিত্তিতে বেতন কম রাখার সিদ্ধান্ত জানান পিএসজি তারকারা।

লে প্যারিসিয়ানের রিপোর্ট অনুযায়ী, সবার সম্মতি অনুযায়ী ৫০ শতাংশ বেতন কেটে রাখার ব্যাপারে রাজি পিএসজি তারকারা। তবে ৫০ শতাংশ বেতন কাটার সিদ্ধান্তটি প্রযোজ্য হবে সে সব খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রে যারা প্রতি মাসে কমপক্ষে ১ লাখ ইউরো আয় করেন। লিগ ওয়ানে খেলেন এমন সর্বোচ্চ ৫০ জন খেলোয়াড় পাওয়া যাবে যারা এই বিশাল অঙ্কের অর্থ আয় করেন। এরমধ্যে বেশিরভাগই পিএসজিতে খেলেন।

যেসব খেলোয়াড় প্রতি মাসে ৫০ হাজার থেকে ১ লাখ ইউরোর নিচে আয় করেন তাদের ক্ষেত্রে ৪০ শতাংশ বেতন কেটে রাখার সিদ্বান্ত হয়। আর যারা ২০ হাজার থেকে ৫০ হাজার ইউরো আয় করেন তাদের ৩০ শতাংশ বেতন কর্তন হবে। ফরাসি সংবাদমাধ্যমগুলোর রিপোর্ট অনুযায়ী, কোভিড-১৯ মহামারির প্রভাবে পিএসজি’র আর্থিক ক্ষতি হবে প্রায় ৩০০ মিলিয়ন ইউরো। ফ্রান্সে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখের বেশি। মৃত্যুর সংখ্যা ১২ হাজারের বেশি।