আশার আলো জ্বলেছিল মৃত্যুপুরী স্পেনে। গত ১৯ দিনের মধ্যে শনিবার করোনা সংক্রমণে সবচেয়ে কম মানুষের মৃত্যু হয়েছিল দেশটিতে। ২৩ মার্চের পর ওইদিন দেশটিতে করোনায় মারা যান ৫১০ জন; যা দুই সপ্তাহের বেশি সময়ের মধ্যে সর্বনিম্ন। তবে ২৪ ঘণ্টা না যেতেই সেই আলো ফিকে হতে শুরু করেছে। ফের শুরু হয়েছে মৃত্যুর মিছিল। গত ২৪ ঘণ্টায় সেই সংখ্যা ৬১৯।

এ নিয়ে স্পেনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৯৭২ জনে। এর আগে গত ১৮ দিনের মধ্যে স্পেনে সবচেয়ে কম মৃত্যুর রেকর্ড ছিল শনিবার; ওইদিন ৫১০ জনের প্রাণহানি ঘটে। রবিবার স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক ঘোষণায় এ তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্যমতে, স্পেনে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৬৬ হাজার ১৯ জন। গতকাল এই সংখ্যা ছিল ১ লাখ ৬১ হাজার ৮৫২ জন।

এদিকে, করোনায় মৃত্যু কমে আসায় স্পেনের সরকার দেশটির নির্মাণ খাত ও প্রয়োজনীয় শিল্প-প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত লাখ লাখ শ্রমিককে সোমবার থেকে কাজে ফেরার অনুমতি দিয়েছিল। নতুন এই মৃত্যুর মিছিল সরকারের সেই সিদ্ধান্তকে প্রশ্নবিদ্ধ করলো।

এই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়ায় সংশ্লিষ্ট কর্মী; যারা বাসায় থেকে কাজ করতে পারছিলেন না তারা এখন কর্মক্ষেত্রে ফিরতে পারবেন। স্যানিটারি, নিরাপত্তা, টেলিযোগাযোগ, কাস্টমস, খাদ্য উৎপাদন ও সরবরাহ, বিদ্যুৎ সরবরাহ, খনিজ এবং তেল উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত কর্মীরা কাজে ফিরতে পারবেন। তবে ভাইরাসটি ফের মাথা চাড়া দেওয়ায় লকডাউন তুলে দিলে এটা আরও ভয়াবহ পরিণতি ডেকে আনতে পারে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের।

সূত্র- কালের কন্ঠ