অননুমোদিতভাবে কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকায় কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালের ছয় চিকিৎসককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিবের টেলিফোনিক নির্দেশনায় এ চিকিৎসকদের বরখাস্ত করে শনিবার (১১ এপ্রিল) আদেশ জারি করে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

এই চিকিৎসকদের রাজধানীর উত্তরার কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য পদায়ন করা হয়েছিল।

বরখাস্ত হওয়া চিকিৎসকরা হলেন জুনিয়র কনসালট্যান্ট (এনেসথেসিয়া) ডা. হীরস্ব চন্দ্র রায়, মেডিকেল অফিসার ডা. ফারহানা হাসানাত, মেডিকেল অফিসার ডা. উর্মি পারভীন ও মেডিকেল অফিসার ডা. কাওসার উল্লাহ।

জুনিয়র কনসালট্যান্ট (গাইনি) ডা. শারমিন হোসেন ও আবাসিক চিকিৎসক ডা. মুহাম্মদ ফজলুল হককেও সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

জানা যায়, এই ছয় চিকিৎসক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা কেন্দ্রে সেবা দিচ্ছেন না জানিয়ে গত ৯ এপ্রিল কুয়েত-মৈত্রী হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মোহাম্মদ সেহাব উদ্দিন স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালককে চিঠি পাঠান।

অপর এক আদেশে বলা হয়, রোগীদের চিকিৎসা করার ক্ষেত্রে অনিচ্ছা প্রকাশ করে কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকায় স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিবের টেলিফোনিক নির্দেশে সরকারি কর্মচারী (শৃংখলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮ এর ধারা ১২ মোতাবেক জুনিয়র কনসালটেন্ট ডা. শারমিন হোসেন এবং আবাসিক চিকিৎসক ডা. মুহাম্মদ ফজলুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করা হল।

আদেশে আরও বলা হয়, এই আদেশে মহাপরিচালকের অনুমোদন রয়েছে এবং এই আদেশ জারির তারিখ থেকে কার্যকর হবে।