দিল্লিতে তাবলিগ জামাতে যোগ দেয়া মুসল্লিদের নিয়ে অনেকে গুজব ও ভূয়া নিউজ ছড়ানো হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বুধবার নিজ কার্যালয়ে রাজ্যের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

মমতা বলেন, দেশে লকডাউন ঘোষণা হয়েছে ২৪ মার্চ। তার আগেই তাবলিগের ওই অনুষ্ঠান হয়েছে। আমরা খবর পাওয়ার পরই ব্যবস্থা নিয়েছি। যারা যারা যোগ দিয়েছিলেন, তাদের সবাইকে চিহ্নিত করে কোয়রান্টিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, মুখ্যমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনে তাবলিগি জামাতের সমাবেশে পশ্চিমবঙ্গের কতজন উপস্থিত ছিল তা জানতে চাওয়া হলে ক্ষুব্ধ হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিরক্তি প্রকাশ করে মমতা বলেন, ‘এ জাতীয় সাম্প্রদায়িক প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করবেন না।

সংবাদ সম্মেলনের একটি ভিডিও লিঙ্ক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে পোস্ট করা হয়েছিল তবে দিল্লির মসজিদ অনুষ্ঠানে উপস্থিতদের বিষয়ে প্রশ্নোত্তরের মুহূর্তটি সেখানে বাদ দেয়া হয়।

প্রসঙ্গত, মার্চের শুরুর দিকে দিল্লির তাবলিগ জামাতের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেয়া ৯৬০ জন বিদেশি মুসল্লিকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে ভারত।

এ তালিকার অর্ধেকই বাংলাদেশি ও ইন্দোনেশিয়ান। সব চেয়ে বেশি এক-তৃতীয়াংশ কালো তালিকাভুক্তই ইন্দোনেশিয়ার। এরপরই যথাক্রমে বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া ও কিরগিস্তানের তাবলিগে যোগ দেয়া মুসল্লিরা আছেন ওই তালিকায়।