করোনাভাইরাসের বিপক্ষে লড়াইয়ে দেশের অভাবী মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেন শচীন টেন্ডুলকার। কিছুদিন আগে সাহায্য করেছিলেন ৫০ লাখ রুপি দিয়ে। এবার নিলেন আরেক পদক্ষেপ

যে যেভাবে পারছেন, করোনাভাইরাসের বিপক্ষে লড়াই করে যাচ্ছেন। পিছিয়ে নেই শচীন টেন্ডুলকারও।

কিছুদিন আগেই সাহায্য করেছিলেন পঞ্চাশ লাখ রুপি দিয়ে। তবে করোনার বিপক্ষে লড়াইয়ে নিজের এই অবদানকে যথেষ্ট মনে করেননি ভারতের ইতিহাসে শ্রেষ্ঠ এই ব্যাটসম্যান। পাঁচ হাজার দরিদ্র মানুষকে এক মাসের জন্য খাবার-দাবার সরবরাহ করবেন তিনি। আর এই কাজ তিনি করছেন ভারতের এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘আপনালয়’ এর মাধ্যমে।

 

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শচীনের এই মহানুভবতার কথা জানিয়েছে আপনালয়। টুইটারে তারা জানিয়েছে, ‘শচীন টেন্ডুলকারকে ধন্যবাদ। এই লকডাউনের সময় যেসব দরিদ্র মানুষেরা সবচেয়ে বেশি কষ্টে আছে, তাঁদের সহায়তা করার জন্য আপনালয়ের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি। সংকটকালীন এই সময়ে তিনি প্রায় পাঁচ হাজার মানুষকে এক মাস ধরে খাওয়াবেন।’

 

অভাবী মানুষদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য শচীন টেন্ডুলকার আপনালয়কেও প্রশংসায় ভাসান। এখন পর্যন্ত একমাত্র ক্রীড়াবিদ হিসেবে ভারতের ইতিহাসে ভারতরত্ন খেতাব পাওয়া এই তারকা আপনালয়ের টুইটের রিপ্লাইয়ে লিখেন, ‘দুঃখী ও দরিদ্র মানুষকে সেবা দেওয়ার কাজ অব্যাহত রাখার জন্য আপনালয়কে শুভেচ্ছা জানাই। ভালো কাজ চালিয়ে যাও তোমরা।’

টেন্ডুলকার এর আগে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল এবং মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে ২৫ লাখ রুপি করে অনুদান দেন।

জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ১৬ লাখ ৯৬ হাজার ১৩৯ জন। ওদিকে এনডিটিভি জানিয়েছে, ভারতে এ পর্যন্ত ২০৬ জন মারা গেছেন, মোট শনাক্ত রোগী ৬৭৬১ জন।